যত্নসহকারে ল্যাপটপ ব্যবহারের দারুন টিপস – 1000FiX Services Ltd

যত্নসহকারে ল্যাপটপ ব্যবহারের দারুন টিপস

ল্যাপটপ ব্যবহারের সাধারণ নিয়মাবলী:

সঠিকভাবে ল্যাপটপের ব্যবহার, যত্ন এবং রক্ষণাবেক্ষণ এর সর্বোচ্চ কর্মক্ষমতা, দীর্ঘ সময় ব্যবহারে সহায়ক। তাই ল্যাপটপের সবোর্চ্চ কর্মক্ষমতা পেতে এর যথাযথ যত্ন প্রয়োজন।

ল্যাপটপের যত্নের প্রসঙ্গে  কিছু  বিষয় তুলে ধরার চেষ্টা করবো যার বাস্তবিক প্রয়োগে সুফল পাওয়া যেতে পারে।

 

) ল্যাপটপ ব্যবহারে সতর্কতা:

 - ল্যাপটপের সংযোগ ক্যাবলসমূহ এবং USB Storage সতর্কতার সাথে কানেক্ট এবং রিমুভ করা প্রয়োজন।

-surge protector এর ব্যবহার ল্যাপটপকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে পারে।

- নরম স্থানে যেমন সোফা, বেড,কার্পেট বা বালিশ ইত্যাদির উপরে রেখে কখনো ল্যাপটপ ব্যবহার করবেন না। এতে Cooling Fan এর বাতাস যাতায়াতে অসুবিধা হয়, যা মাদারবোর্ড ক্ষতি হওয়ার কারন।

-ল্যাপটপ ব্যবহারের সময় Keyboard বা LCD তে অস্বাভাবিক চাপ দেয়া যাবে না।

- অনেকে ল্যাপটপের LCD বেশী Angle এ চাপ দিয়ে রাখেন। এতে সমস্যা তৈরী হতে পারে।

-যে LCD গুলো Rotate করা যায় সেগুলো Design Patern এর বেশী Rotate করলে LCD বা Hinges এর সমস্যা হতে পারে।

-LCD তে ধারালে কিছু কলম, পেন্সিল বা এজাতীয় কিছু দিয়ে দাগ দেয়া থেকে বিরত থাকুন।

-ল্যাপটপের সামনে বা পাশে খাবার বা তরল জাতীয় কোন জিনিস রাখা থেকে বিরত থাকুন।

-ল্যাপটপের কীবোর্ডের উপর কলম, পেন্সিল, বই,  পেপারওয়েট বা  এজাতীয় কোন জিনিস রাখা থেকে বিরত থাকুন।

-ল্যাপটপ বন্ধ করার সময় সাবধানে বন্ধ করুন। LCD এর সামনের দিকের মাঝখানের একপাশ ধরে সাবধানে LCD বন্ধ করা ।

- কাজ শেষে ল্যাপটপ রাখার সময় এর উপর অন্য কিছু রাখা যাবে না।

- একাধিক ল্যাপটপ একসাথে সরিয়ে রাখার সময় বা এক স্থান থেকে অন্য স্থানে নেয়ার সময় একটার উপর একটা না রেখে আলাদা রাখাই ভালো।

- শুষ্ক স্থানে ল্যাপটপ রাখুন। যেখানে তরল কিছু পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে অথবা বৃষ্টির পানির স্পর্শে আসার সুযোগ রয়েছে সে স্থানে ল্যাপটপ রাখা থেকে বিরত থাকুন।

-যানবাহনে চলার সময় ল্যাপটপ সাবধানে রাখা, অতিরোদ বা অতি তাপমাত্রায় ল্যাপটপ রাখা থেকে বিরত থাকুন।

২) ল্যাপটপ পরিস্কারে সতর্কতা:

-ল্যাপটপ পরিষ্কার করার আগে ল্যাপটপ বন্ধ করে পাওয়ার ক্যাবল ও অন্যান্য ডিভাইস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে রাখুন।

-ল্যাপটপ নিয়মিত পরিষ্কার করুন। নিয়মিত কয়েকমিনিট সময় ব্যয় করে ল্যাপটপ পরিষ্কার রাখলে তা ল্যাপটপের মেয়াদকাল বৃদ্ধিতে কার্যকর ভূমিকা রাখবে। বিশেষ করে LCD Screen, Keyboard, এবং Chasis Air   পরিষ্কারে প্রাধান্য দেয়া জরুরী।

- একটি পরিষ্কার ও নরম Microfiber কাপড় দিয়ে LCD স্ক্রীনটি আলতো করে মুছুন। যেকোন ক্লিনার LCD পরিষ্কারের জন্য ব্যবহার করা ঠিক নয়। এজন্য নির্দিষ্ট ক্লিনার রয়েছে তা ব্যবহার করুন।

- একটি পরিষ্কার ও নরম Microfiber কাপড় দিয়ে LCD স্ক্রীনটি আলতো করে মুছুন।

 

৩) এসি অ্যাডাপ্টার, ক্যাবল এবং ব্যাটারী ব্যবহারে সতর্কতা:


- আপনার ল্যাপটপকে হঠাৎ ভোল্টেজ আপ-ডাউনের ক্ষেত্রে    Surge Suppressor, Line Conditioner,   এবং UPS ব্যবহার করুন।

- ল্যাপটপের সাথে সংশ্লিষ্ট ব্র্যান্ডের অ্যাডাপ্টার ব্যবহার করুন।

-এসি অ্যাডাপ্টারকে কাগজ বা কভার দিয়ে ঢেকে রাখা থেকে বিরত থাকুন।

-ল্যাপটপ যেখানে প্লাগইন করবেন সে বিদ্যুৎ কানেকশন ঠিক আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে নিন।

-ল্যাপটপে পাওয়ার ক্যাবল লাগানোর পূর্বে বিদ্যুতের ক্যাবল প্লাগইন থাকলে তা বন্ধ করে নিন অথবা সতর্কতার সাথে পাওয়ার ক্যাবল সংযোগ দিন।

- ল্যাপটপ পূর্ণ চার্জ হওয়ার পর ক্যাবলটি আনপ্লাগ করে নিন এবং ল্যাপটপটিকে ব্যাটারী পাওয়ারে চলতে দিন। এ প্রসেসটি ব্যাটারীর আয়ুকাল বৃদ্ধিতে খুবই কার্যকর।

-ব্যাটারী লাইফ এবং ল্যাপটপের মেয়াদকাল ধরে রাখার জন্য কাজশেষে ল্যাপটপ বন্ধ করে রাখুন।

 

৪) ল্যাপটপ পরিবহনের সময়  সতর্কতা:

- ল্যাপটপ পরিবহনের পূর্বে সম্পূর্ণরুপে পাওয়ার বন্ধ করে রাখুন।

-ল্যাপটপ প্যাক করার পূর্বে USB Drive , AC Adapter এর মতো প্লাগ ইন করা ডিভাইসগুলো সরিয়ে ফেলুন। নতুবা ল্যাপটপের পোর্ট বা ডিভাইস ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

- স্ক্রিন বা  Palmrest এর কর্ণার ধরে ল্যাপটপ তুলবেন না। এর ফলে LCD, Palmrest বা Touchpad ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

-পরিবহনের পূর্বে ল্যাপটপ ভালোভাবে প্যাক করা জরুরী। তাছাড়া LCD যদি পোর্টেবল হয় তাহলে আলাদা করে প্যাক করা ভালো। সবচেয়ে ভালোহয় যদি ল্যাপটপের জন্য আলাদা কেইস যেমন- Gum Drop Case ব্যবহার করা অত্যন্ত নিরাপদ।

-ল্যাপটপ নিয়ে ভ্রমনের সময় laptop sleeve, laptop carrying case, or a backpack (with laptop padding) সহ ল্যাপটপ প্যাকেট করা উচিত।

-পরিবহনের সময় সাবধানে থাকা উচিত যেন কোনভাবেই ল্যাপটপের উপরে কোন চাপ না পড়ে।